বিকাশ একাউন্ট খোলার নিয়ম ২০২১ | bkash account kholar niom 2021


বিকাশ একাউন্ট খোলার নিয়ম ২০২১ (bkash account kholar niom 2021) সম্পর্কে আমাদের এই পোস্ট। এছাড়াও এই পোস্টে বিকাশ সম্পর্কে সকল তথ্য শেয়ার করার চেষ্টা করেছি।
বিকাশ কি, বিকাশ এর সুবিধা, বিকাশ কোড, বিকাশ হেল্পলাইন, বিকাশ বিভিন্ন একাউন্ট ও বিকাশ চার্জ সম্পর্কিত বিষয়ে বিস্তারিত এই পোস্টে লেখার চেষ্টা করেছি।

বিকাশ কি

বিকাশ হচ্ছে ব্র্যাক ব্যাংক বাংলাদেশ এর একটি মোবাইল ব্যাংকিং প্রতিষ্ঠান। বাংলাদেশ ব্যাংক কর্তৃক লাইসেন্স এবং অনুমোদন প্রাপ্ত হয়ে ব্র্যাক ব্যাংক লিমিটেডের বিকাশ মোবাইল ব্যাকিং সেবা হিসেবে পরিচালিত হচ্ছে। বিকাশ মানুষকে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে পেমেন্ট এবং অর্থ স্থানান্তর পরিষেবাগুলি নিরাপদ, সুবিধাজনক এবং সহজ উপায় সরবরাহ করছে।
বাংলাদেশ ব্র্যাক ব্যাংক লিমিটেড এবং মানি ইন মোশন এলএলসি, ইউএসএ এর একটি যৌথ উদ্যোগ হিসেবে ২০১০ সালে বিকাশ যাত্রা শুরু করে। ২০১৩ সালের এপ্রিল মাসে, ফিন্যান্স কর্পোরেশন (আইএফসি), ওয়ার্ল্ড ব্যাংক গ্রুপের সদস্য ইন্টারন্যাশনাল বিকাশ এর ইকুইটি পার্টনার হিসেবে যোগদান করে। এছাড়াও ২০১৪ সালের এপ্রিল মাসে, বিল এন্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন ইনভেস্টর হিসেবে বিকাশ-এ যোগদান করে।
চীনের আলিবাবা গ্রুপের অ্যাফিলিয়েট, অ্যান্ট ফিনান্সিয়াল (আলী-পে) ২০১৮ সালের এপ্রিল মাসে বিকাশ-এ বিনিয়োগ করেছে। বিকাশ তাদের অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে লিখেছে বিকাশ-এর মূল উদ্দ্যেশ্য হলো বাংলাদেশের মানুষের জন্যে ব্যাপক পরিসরে আর্থিক সেবা নিশ্চিত করা। বিশেষ করে স্বল্প আয়ের জনগোষ্ঠীকে সুবিধাজনক, সাশ্রয়ী, এবং নির্ভরযোগ্য সেবা প্রদানের মাধ্যমে অর্থনৈতিক কার্যকলাপের সাথে সম্পৃক্ত করা।দেশজুড়ে বিকাশের ৫ কোটি একাউন্ট আছে। দেশের শহুরে ও গ্রামাঞ্চলে ১,৮০,০০০ এরও বেশি বিকাশ এজেন্ট পয়েন্ট আছে, সেই পয়েন্টগুলো থেকে সহজেই টাকা লেনদেন করা যাচ্ছে।
আমি আশা করি বিকাশ কি, বিকাশ কিভাবে শুরু হয়েছে, বিকাশ কত সালে যাত্রা শুরু করেছে, বিকাশের পার্টনার কারা এই সকল বিষয়ে ধারণা পেয়েছেন।

বিকাশ এর সুবিধা

বিকাশ এর সুবিধা সম্পর্কে অনেক লেখা যায় কিন্তু আমি এই পোস্টে বিকাশ এর মূল সুবিধা গুলি আপনাদের সাথে শেয়ার করবো।
• বিকাশের মাধ্যমে দেশের এক প্রান্ত থেকে আরেক প্রান্ত দ্রুত টাকা লেনদেন করা যায়।আমার কাছে সব থেকে ভালো সুবিধা যেটা মনে হয়েছে তাহলো বিকাশের অসংখ্য এজেন্ট পয়েন্ট রয়েছে গ্রামে,এজন্য মানুষের টাকা উত্তোলন করতে বা টাকা পাঠাতে কোনো সমস্যা হয় না।
• বিকাশ থেকে *247# ডায়াল করে অথবা বিকাশ অ্যাপ থেকে মোবাইল রিচার্জ করতে পারবেন।
আপনার বিকাশ থেকে সকল মোবাইল নেটওয়ার্ক অপারেটরে পিপেইড পোস্টপেইড নাম্বারে মোবাইল রিচার্জ করতে পারবেন। যেসকল মোবাইল নেটওয়ার্ক অপারেটরে রিচার্জ করতে পারবেন দেখে নিন :গ্রামীণফোন, টেলিটক, রবি, এয়ারটেল, বাংলালিংক। এই সকল মোবাইল অপারেটরে বিকাশ অফার জেনে রিচার্জ করলে পেতে পারেন এক্সটা সুবিধা, যেমন: ক্যাশব্যাক বোনাস, বেশি এমবি, বেশি মিনিট।
• আপনার বিকাশ থেকে *247# ডায়াল করে অথবা বিকাশ অ্যাপ থেকে মাসিক ইউটিলিটি বিল যেমন বিদ্যুৎ, গ্যাস, ইন্টারনেট এবং অন্যান্য পরিষেবাগুলির জন্য অর্থ প্রদান করতে পারবেন। এছাড়াও বাস, ট্রেন, লঞ্চ এবং এয়ার টিকিট, সিনেমার টিকিট, ভ্রমণের জন্য হোটেল বুকিং প্রভৃতি বিকাশ পেমেন্ট করে সংগ্রহ করতে পারবেন।
• আপনারা বিকাশ থেকে বিভিন্ন স্টোরে পেমেন্ট করে পণ্য ক্রয় করতে পারবেন। এছাড়াও বিভিন্ন অনলাইন শপ, ই-কমাস ওয়েবসাইট থেকে বিকাশ পেমেন্ট করে আপনার প্রয়োজনীয় পণ্য সংগ্রহ করতে পারবেন।
• আপনারা যদি বিকাশ এর অ্যাপ ব্যবহার করেন তাহলে বিকাশ আপনাকে অনেক সময় কিছু এক্সটা সুবিধা দিবে। যেমন হতে পারে রিচার্জের উপর ক্যাশব্যাক, কোনো বিল পেমেন্ট করলে ক্যাশব্যাক প্রভৃতি। আপনার যদি সুযোগ থাকে বিকাশ অ্যাপ ব্যবহার করার তাহলো অবশ্যই ব্যবহার করবেন আরও অনেক এক্সটা সুবিধা সুবিধা পাবেন।
আমি আশা করি বিকাশ এর সুবিধা সম্পর্কে এই পোস্ট কিছুটা হলেও আপনাদেরকে ধারণা দিতে পেরেছি।

বিকাশ এর অসুবিধা

কিছু মানুষ প্রযুক্তির অপব্যবহার করে সাধারণ মানুষকে বিকাশ এর মাধ্যমে অসুবিধায় ফেলছে। সহজ সরল মানুষের বিকাশ একাউন্ট থেকে হাতিয়ে নিচ্ছে হাজার হাজার টাকা। বিকাশ এর এই অসুবিধা থেকে মুক্তি পেতে আপনাদেরকে একটু সচেতন হতে হবে। বিকাশ থেকে কিভাবে প্রতারণা করে টাকা হাতিয়ে নেয় এরকম অনেক ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ইউটিউব এবং ফেসবুকে পাবেন সেই ভিডিওগুলো মনোযোগ সহকারে দেখুন,আশা করি প্রতারণা থেকে বাঁচতে পারবেন।
এছাড়াও প্রতারণা এড়াতে বিকাশ কতৃপক্ষের নির্দেশনা মনে চলুন। আর বিশেষ করে বিকাশ এর সাথে সম্পৃক্ত এরকম লোভনীয় কোনো বিষয়ে অগ্রসর হবে না। সবসময় সর্তক থাকুন, আপনার বিকাশ একাউন্ট সেভ থাকবে এবং আপনার টাকাও নিরাপদে থাকবে।

বিকাশ কোড

আমি অনলাইনে বিভিন্ন বিষয়ে জানার জন্য অনলাইনে সার্চ করি। আমার মতো অনেকেই গুগলে সার্চ করছে বিকাশ কোড জানার জন্য চেষ্টা করছে। আপনার যাতে খুব সহজেই বিকাশ কোড খুঁজে পান সেজন্য এই পোস্ট বিকাশ কোড যুক্ত করে দিলাম।
বিকাশ কোড : *247#

বিকাশ হেল্পলাইন

আপনাদের অনেকেরই বিকাশ হেল্পলাইন নাম্বার প্রয়োজন হবে কারণ বিকাশ একাউন্ট সংক্রান্ত যেকোনো সমস্যা সমাধানের জন্য প্রাথমিক অবস্থায় বিকাশ হেল্পলাইন নাম্বার কল করে চেষ্টা করতে হয়।আপনারা যারা বিকাশ হেল্পলাইন নাম্বার খুজতেছেন এই পোস্টটি আপনাদের জন্য,এই পোস্টে আমি বিকাশ হেল্পলাইন নাম্বার আপনাদের সাথে শেয়ার করলাম।
বিকাশ হেল্পলাইন : 16247

বিকাশ একাউন্ট খোলার নিয়ম ২০২১

২০২১ সালে নতুন বিকাশ একাউন্ট খোলা একদম সহজ। বাংলাদেশের সকল সিম অপারেটর গ্রামীণফোন, এয়ারটেল, বাংলালিংক, রবি এবং টেলিটক গ্রাহকগণ বিকাশ একাউন্ট খুলতে পারবেন নিজের স্মার্ট ফোন থেকে বিকাশ অ্যাপ এর মাধ্যমে। আপনি বিকাশ অ্যাপ ডাউনলোড করে ঘরে বসে অ্যাপ থেকেই একাউন্ট খুলতে পারবেন।
বিকাশ একাউন্ট খোলার জন্য আপনার লাগবে একটি মোবাইল ফোন এবং NID কার্ডের মূল কপি। বিকাশ অ্যাপ থেকে বা বিকাশ এজেন্ট পয়েন্ট থেকে কিভাবে বিকাশ একাউন্ট খুলতে হয় জানতে বিকাশের এই পোস্টটি পড়ুন : নতুন বিকাশ একাউন্ট খোলা একদম সিম্পল

বিকাশ পার্সোনাল রিটেইল একাউন্ট খোলার নিয়ম ২০২১ ও সুবিধা সমূহ

বিকাশ অনলাইন ব্যবসায়ীদের জন্য নিয়ে এলো নানাবিধ সুবিধাসহ পার্সোনাল রিটেইল একাউন্ট। এই ব্যবসায়িক একাউন্ট খুলতে ট্রেড লাইসেন্স প্রয়োজন নেই, শুধু জাতীয় পরিচয় পত্র ও সিম থাকলেই হয়। এই একাউন্টের মাধ্যমে পেমেন্ট গ্রহণ, টাকা পাঠানো ও অন্য মার্চেন্টকে পেমেন্ট এবং এজেন্ট পয়েন্ট বা এটিএম থেকে ক্যাশ আউট করতে পারবেন। একাউন্ট খুললেই থাকছে দারুণ অফার;
• প্রতি মাসে ৫,০০০ টাকা পর্যন্ত কোনো চার্জ ছাড়াই ক্যাশ আউট করতে পারবেন
• প্রতি মাসে ২০ জন গ্রাহকের পেমেন্ট গ্রহণ করলেই পেতে পারেন ১০০ টাকা বোনাস।
বিকাশ পার্সোনাল রিটেইল একাউন্ট সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে বিকাশের এই পোস্ট পড়ুন।
বিকাশ পার্সোনাল রিটেইল একাউন্ট খোলার নিয়ম ভিডিও-তে দেখে নিন

একটা NID কার্ড দিয়ে কয়টি বিকাশ একাউন্ট খোলা যায়

আপনারা অনেকই গুগলে সার্চ করছেন একটা nid কার্ড দিয়ে কয়টি বিকাশ একাউন্ট খোলা যায় । তাই আপনাদের যাতে বিস্তারিত জানতে পারেন সেজন্য এই বিষয়ে একটি বিস্তারিত পোস্ট লিখেছি নিচে দেওয়া লিংকে ভিজিট করে পোস্টটি পড়ুন : একটা NID দিয়ে কয়টি বিকাশ একাউন্ট খোলা যায় – জেনে নিন

বিকাশ একাউন্ট বন্ধ করার নিয়ম ? বিকাশ একাউন্ট ডিলিট করার নিয়ম ২০২১

আপনারা যারা বিকাশ একাউন্ট বন্ধ করার নিয়ম ? বিকাশ একাউন্ট ডিলিট করার নিয়ম ২০২১ বুুঝতেছেন তাদের জন্য একটি বিস্তারিত পোস্ট লিখেছি পড়ুন : বিকাশ একাউন্ট বন্ধ করার নিয়ম ২০২১|বিকাশ একাউন্ট ডিলিট করার নিয়ম ২০২১

বিকাশ একাউন্ট নাম্বার পরিবর্তন করার নিয়ম ২০২১

আপনারা যারা বিকাশ একাউন্ট নাম্বার পরিবর্তন করার নিয়ম ২০২১ সম্পর্কে জানতে চান তাদের জন্য বিস্তারিত একটি পোস্ট লেখেছি পড়ুন : বিকাশ একাউন্ট নাম্বার পরিবর্তন করার নিয়ম ২০২১

বিকাশ একাউন্টের মালিকানা পরিবর্তন করার নিয়ম ২০২১

আপনারা যারা বিকাশ একাউন্টের মালিকানা পরিবর্তন করার নিয়ম ২০২১ সম্পর্কে জানতে চান তারা লিংকে প্রবেশ করে পোস্টটি পড়ুন : বিকাশ একাউন্টের মালিকানা পরিবর্তন করার নিয়ম জেনে নিন

বিকাশ চার্জ

বিকাশ ইউএসডি চার্জ, বিকাশ অ্যাপ চার্জ, বিকাশ এটিএম চার্জ, বিকাশ ক্যাশ ইন চার্জ, বিকাশ সেন্ড মানি চার্জ প্রভৃতি সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পড়ুন : বিকাশ ক্যাশ আউট চার্জ ২০২১|BKash Cash Out Charge 2021| বিকাশ লিমিট

এই পোস্টগুলো পড়তে পারেন —

বিকাশ অফার ২০২১ | বিকাশ নতুন অফার ২০২১|Bkash Offer 2021
বিকাশ রিচার্জ অফার ২০২১ | BKash New Recharge Offer 2021
আমি আশা করি বিকাশ কি, বিকাশ এর সুবিধা, বিকাশ এর অসুবিধা, বিকাশ এর কোড, বিকাশ হেল্পলাইন, বিকাশ একাউন্ট খোলার নিয়ম ২০২১ সহ এই পোস্টে আপনারা সকল বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পেয়েছেন। আপনাদের যেকোনো মূল্যবান মতামত কমেন্ট লিখতে পারেন। আর আপনাদের যেকোনো জরুরি প্রয়োজনে সরাসরি আমার ফেসবুক পেজে মেসেজ করতে পারেন।
পোস্টটি বন্ধুদের সাথে শেয়ার করতে ভুলবেন না।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *